রোববার ১৯ মে ২০২৪ ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

কালিয়াকৈরে চলছে পাঁচ দিনব্যাপী বৈশাখী মেলা
সানজিদা আক্তার:
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২৪, ৫:৪৬ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

কালিয়াকৈরে চলছে পাঁচ দিনব্যাপী বৈশাখী মেলা
বাঙালির সবচেয়ে বড়  উৎসব পহেলা বৈশাখ অর্থাৎ বাংলা নববর্ষ। আর পহেলা বৈশাখ নিয়ে যে উৎসব আয়োজন, তা বাঙালির নিজস্ব সংস্কৃতি।

বাঙালির নতুন বছরের প্রথম দিন, পহেলা বৈশাখ। ধর্ম বর্ণ ভেদাভেদ ভুলে সকল সম্প্রদায়ের এক মিলনের স্মারক। নতুন বছরের আগমন যেন বাঙালির জন্য একটি মহোৎসব। নববর্ষ উপলক্ষে বিভিন্ন জায়গায় আয়োজন করা হয়    মঙ্গল শোভাযাত্রা, বৈশাখী মেলা, পুতুল নাচ, জারি-সারি  গানের আসর, লাঠি খেলা, নানা রকম পিঠা-পুলির আয়োজন, অনেক স্থানে ইলিশ মাছ দিয়ে পান্তাভাত খাওয়ার আয়োজন ও করা হয়।
 
প্রতিবারের মত এবারও গাজীপুরের কালিয়াকৈর  উপজেলার বিজয় স্মরনি স্কুলের মাঠে নববর্ষ উপলক্ষে ১৪ এপ্রিল শুরু হয়েছে  পাঁচ দিনব্যাপী মেলা। মেলাটি শেষ হবে ১৮ এপ্রিল। 
মাছে ভাতে বাঙালি প্রত্যেক বছরই বাংলা নতুন বছরকে বরণ করে নেয় নতুন আমেজের সাথে। এই মেলায় রয়েছে  বিভিন্ন ধরনের  সাজ-সরঞ্জাম এর দোকান, খাবারের দোকান, নাগরদোলা, ফুলের দোকান, বাচ্চাদের বিভিন্ন ধরনের খেলনা, কাপড়ের দোকান ইত্যাদি।

"প্রত্যেক বছরই নববর্ষ উপলক্ষে  মেলা অনুষ্ঠিত হয়। এই মেলার মাধ্যমে পুরোনো বন্ধু-বান্ধবের সাথে দেখা হয়ে যায়। তাদের সাথে আড্ডা দেওয়া, ঘুড়ে বেড়ানো, একসাথে নাগরদোলায় ওঠা, সব কিছু মিলিয়ে বেশ মজা হচ্ছে।" বলে জানান মেলায় আসা হৃদয় হাসান।

পরিবার সন্তান নিয়ে ঘুরতে আসা জাহিদুল ইসলাম বলেন, ছেলেকে নিয়ে নাগর দোলায় উঠেছি।  অনেক খেলনা কিনে দিয়েছি। আগের  বার রোজার মধ্যে নববর্ষ পরার কারণে মেলা হয়ে ওঠেনি। কিন্তু এ বছর মেলায় এসে  ঘুরতে ভালো লাগছে। নতুন নতুন  দোকান এসেছে, বেশ ভালো ভালো খাবারের দোকান রয়েছে।

এক দোকানি জানান, আগের বছরের তুলনায় এ বছর অনেক বেশি  আনাগোনা দেখা যাচ্ছে মানুষের, এবং জিনিসপত্র অনেক বেশি বিক্রি হচ্ছে। কিশোর কিশোরীদের বেশি দেখা যাচ্ছে মেলায়। আর অতিরিক্ত গরম থাকার কারণে জুসের দোকানগুলোতে বেশি ভিড় দেখা যাচ্ছে।

এই উপজেলায় প্রায় এক যুগ ধরে বৈশাখী মেলার আয়োজন করা হচ্ছে। মূলত ২০-২৫ বসরের যুবকেরা এই মেলার আয়োজন করে থাকে এবং নিজ উদ্যোগে তারা বিভিন্ন ধরনের স্টল খুলে বসে। নানান বয়সের মানুষ অংশগ্রহণ করেন এখানে। বিন্নি বাতাসাসহ নানা ধরনের খাবারও পাওয়া যায়, জানান ষাট বছর বয়সী মতি রহমান।

মেলার আয়োজক কমিটি ফরহাদ রেজা বলেন, নববর্ষ উপলক্ষে প্রায় প্রতি বছর আমরা মেলার আয়োজন করি। সকল জাতির মানুষ এই মেলায় অংশগ্রহণ করে। সবাই মিলে আয়োজন করায় অনেক ব্যস্ততা এবং আনন্দের সাথে আমাদের নববর্ষ কেটে যায়।  আর অনেক বন্ধু-বান্ধবের সাথে দেখা হয়। নববর্ষের সাথে সাথে মনে হয় এটি এক ধরনের পূর্ণমিলনী অনুষ্ঠান।





ডেল্টা টাইমস/সিআর


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
  এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ  
সম্পাদক ও প্রকাশক: মো. জাহাঙ্গীর আলম, নির্বাহী সম্পাদক: মো. আমিনুর রহমান
প্রকাশক কর্তৃক ৩৭/২ জামান টাওয়ার (লেভেল ১৪), পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত
এবং বিসমিল্লাহ প্রিন্টিং প্রেস ২১৯ ফকিরাপুল, মতিঝিল থেকে মুদ্রিত।

ফোন: ০২-৪৭১২০৮৬১, ০২-৪৭১২০৮৬২, ই-মেইল : deltatimes24@gmail.com, deltatimes24@yahoo.com
সম্পাদক ও প্রকাশক: মো. জাহাঙ্গীর আলম, নির্বাহী সম্পাদক: মো. আমিনুর রহমান
প্রকাশক কর্তৃক ৩৭/২ জামান টাওয়ার (লেভেল ১৪), পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত
এবং বিসমিল্লাহ প্রিন্টিং প্রেস ২১৯ ফকিরাপুল, মতিঝিল থেকে মুদ্রিত।
ফোন: ০২-৪৭১২০৮৬১, ০২-৪৭১২০৮৬২, ই-মেইল : deltatimes24@gmail.com, deltatimes24@yahoo.com