রোববার ১১ এপ্রিল ২০২১ ২৭ চৈত্র ১৪২৭

দুর্দান্ত ভিনিসিয়াসে রিয়ালের কাছে পাত্তা পায়নি লিভারপুল
ডেল্টা টাইমস্ ডেস্ক :
প্রকাশ: বুধবার, ৭ এপ্রিল, ২০২১, ১১:০৩ এএম | অনলাইন সংস্করণ

রিয়াল মাদ্রিদের ব্রাজিলিয়ান তারকা ভিনিসিয়াস জুনিয়রকে আটকানোর কোনো মন্ত্র যেনো ছিল না লিভারপুলের কাছে। ফলে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ আটের প্রথম লেগে রিয়ালের কাছে হারতে হয়েছে তাদের। জোড়া গোল করে দলকে দুর্দান্ত জয় এনে দেন ভিনিসিয়াস।

মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১টায় আলফ্রেড ডি স্টেফানো স্টেডিডায়মে লিভারপুলকে  ৩-১ গোলে হারায় রিয়াল। দুটি গোল আসে ভিনিসিয়াসের পা থেকে। আরেকটি করেন অ্যাসেনসিও। লিভারপুলের হয়ে একমাত্র গোলটি করেন মোহাম্মদ সালাহ।

শুরু থেকেই দারুণ খেলতে থাকা রিয়াল শেষ বাশি বাজা পর্যন্ত দ্য রেডসদের চাপে রাখে। ম্যাচ শুরুর ২ মিনিটেই দারুণ সুযোগ পেয়েছিল রিয়াল। দলটির ফরাসি তারকা স্ট্রাইকার করিম বেনজেমা বাম পায়ে ২৫ গজ দূর থেকে শটও নিয়েছিলেন; কিন্তু কোনো গতি ছিল না। আর সোজাসুজি যাওয়াতে বল ধরতে কোনো সমস্যাই হয়নি লিভারপুল গোলরক্ষক অ্যালিসন বেকারের।
দুর্দান্ত ভিনিসিয়াসে রিয়ালের কাছে পাত্তা পায়নি লিভারপুল

দুর্দান্ত ভিনিসিয়াসে রিয়ালের কাছে পাত্তা পায়নি লিভারপুল


১০ মিনিটের সময় মোহাম্মদ সালাহর একটি চেষ্টা ব্যর্থ করে দেন মেন্ডি। মাঝ মাঠে বল পেয়ে দ্রুতগতিতে ছোটার চেষ্টা করছিলেন; কিন্তু কোনো কাজ হয়নি। এর দুই মিনিট পরেই লিভারপুলের ডি বক্সের একটু সামনে শট নিতে গিয়ে পড়ে যান লুকা মডরিচ। ডি বক্সঘেষা হওয়াতে পেনাল্টির আবেদন করেও লাভ হয়নি।

১৬ মিনিটে আলেকক্সান্ডার আরনল্ডের একটি ক্রস দারুণ দক্ষতায় রুখে দেন লুকাস ভাজকুয়েজ। ২৫ মিনিটের সময় বেনজেমাকে রুখে দেন কাবাক। ক্রুস থেকে অ্যাসেনসিও হয়ে বল এসেছিলো বেনজেমার পায়ে। তবে জালে জড়াতে ব্যর্থ হন।

২৭ মিনিটে ব্রাজিলিয়ান ভিনিসিয়াসের পা থেকে গোল পেয়ে যায় রিয়াল। নিজেদের ডি বক্সের একটু সামনে থেকে বল উড়িয়ে লং পাস দেন ক্রুস, বাম বাহু দিয়ে দারুণভাবে বল গ্রহণ করেন ভিনিসিয়াস। সঙ্গে লিভারপুলের ফিলিপস থাকলেও পেরে ওঠেননি। দ্রুতগতিতে দারুণ শটে অ্যালিসনকে ফাঁকি দিয়ে বল জড়ান দ্য রেডসদের জালে।

৩২ মিনিটের অল্পের জন্য পেনাল্টি থেকে বেঁচে যায় লিভারপুল। ভিনসিয়াস বল বাড়িয়ে দিয়েছিলেন বেনজেমার দিকে কিন্তু তাকে ট্যাকল করে বসেন কাবাক। ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির (ভার) সহায়তা নিয়েছিলেন রেফারি। ট্যাকল গুরুতর না হওয়াতে এই যাত্রায় বেঁচে যান অথিতিরা।

এর চার মিনিট পরেই দ্বিতীয় গোলটি পেয়ে যায় রিয়াল। এবার নায়ক অ্যাসেনসিও। সহায়তা করেছেম ক্রুস। তিনি এবারও বল উড়িয়ে দিয়েছিলেন ভিনসিয়াসের দিকে। কিন্তু ডিফেন্ডার আলেক্সান্ডার আরনল্ড বল ক্লিয়ার করতে গিয়ে দিয়ে দেন অ্যাসেনসিওর পায়ে। তার সামনে ছিল শুধু অ্যালিসন। তাকে ফাঁকি দিয়ে বল জালে জড়াতে ভুল করেননি অ্যাসেনসিও।

৪৩ মিনিটে আবারো গোল পেতে পারতেন অ্যাসেনসিও। রক্ষণভাগে কাবাকের ব্যাক পাস তার পায়ে আসে। শটও নিয়েছিলেন ডান পায়ে কিন্তু রুখে দেন অ্যালিসন।

প্রথমার্ধ দারুণ কাটায় রিয়াল। অন্যদিকে লিভারপুলকে দেখা যায় বিপর্যস্ত। ভুল করেছেন ডিফেন্ডাররা। মাঠে মিস হচ্ছিল পাস। আটকাতে পারছিলেন মা ভিনসিয়াসকে। অ্যালিসন রুখে না দিলে বিরতির আগে আরও একটি গোল হজম করতে হতো। শেষ পর্যন্ত ২-০ গোলের সমীকরণ নিয়ে বিরতিতে যায় দুই দল।

বিরতি থেকে ফেরা চাঙ্গা দেখা যায় লিভারপুলকে। ৫১ মিনিটে মোহাম্মদ সালাহার ধূর্ততায় একটি গোল শোধ করে ক্লপের শিষ্যরা।

উইনজালডাম মাঝ মাঠ থেকে বল বাড়িয়ে দেন সামনে থাকা জোতার দিকে। জোতা বল নিয়ে ছুটতে থাকেন তবে মডরিচের বাধা পেয়ে শট নিতে পারেননি। উল্টো বল চলে আসে ডি বক্সে থাকা সালাহর পায়ে। তিনি কর্তোয়াকে ফাঁকই দিতে ভুল করেননি।

২ মিনিট পরেই আলেক্সান্ডার আরনল্ডের ক্রস থেকে জোতা চেষ্টা করেছিলেন রিয়ালের জালে জড়াতে, তবে চেষ্টা কাজে আসেনি।

৬৩ মিনিটে রিয়ালকে রক্ষা করেন মেন্ডি। বাম দিক থেকে জোতা-রবার্টসন ওয়ান টু ওয়ান খেলে বল দিয়েছিলেন মানেকে। মাত্র ছয় গজ দূরে থাকা মানে শট নেওয়ার আগেই বল ক্লিয়ার করেন মেন্ডি।

এর ১ মিনিট পরেই লিভারপুলকে বাঁচিয়ে দেন আলেক্সান্ডার। তবে ৬৫ মিনিটে শেষ রক্ষা হয়নি। এবারো ভিনিসিয়াস। কর্ণার থেকে বল পেয়ে মডরিচ বল বাড়িয়ে দেন ডি বক্সে থাকা ভিনিসিয়াসের দিকে। দারুণ দক্ষতায় জালে বল জড়াতে ভুল করেননি তিনি।

৭১ মিনিটে দুর্দান্ত গতিতে আবারো আক্রমণে গিয়েছিলেন ভিনিসিয়াস। তবে ফরাসি তারকা বেনজেমার দিকে বাড়িয়ে দিলেও তিনি লক্ষ্যভেদ করতে পারেননি।

গোল শোধে মরিয়া লিভারপুলের ভাগ্য সহায় ছিল না। ৭৭ মিনিটে থিয়াগোর শট চলে যায় বারের ওপর দিয়ে। ৮৬ মিনিটে দুর্দান্ত গতিতে এগিয়ে যেয়েও গোলের সুযোগ তৈরি করতে পারেননি সাদিও মানে।

শেষ পর্যন্ত হার নিয়েই মাঠ ছড়তে হয় লিভারপুলকে। এদিকে প্রথম লেগে দারুণ জয়ে সেমিফাইনালের পথে একধাপ এগিয়ে থাকলো রিয়াল। ১৫ মার্চ অ্যানফিল্ডে দ্বিতীয় লেগের খেলায় মুখোমুখি হবে দুই দল। সেমিতে যেতে হলে এই ম্যাচে কোনো গোল হজম না করে রিয়ালকে কমপক্ষে তিনটি গোল দিতে হবে দ্য রেডসদের।





ডেল্টা টাইমস্/সিআর/জেড এইচ

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
  এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ  
সম্পাদক ও প্রকাশক: মো: জাহাঙ্গীর আলম, নির্বাহী সম্পাদক: মো: আমিনুর রহমান
প্রধান কার্যালয়: মহাখালী ডিওএইচএস, রোড নং-৩১, বাড়ী নং- ৪৫৫, প্রকাশক কর্তৃক বিসমিল্লাহ প্রিন্টিং প্রেস থেকে মুদ্রিত
২১৯ ফকিরাপুল (১ম লেন নীচ তলা), মতিঝিল থেকে প্রকাশিত।  বাণিজ্যিক কার্যালয়: ৩৭/২ জামান টাওয়ার (১৫ তলা), পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০।

ফোন: ০২-৪৭১২০৮৬১, ০২-৪৭১২০৮৬২, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
সম্পাদক ও প্রকাশক: মো: জাহাঙ্গীর আলম, নির্বাহী সম্পাদক: মো: আমিনুর রহমান
প্রধান কার্যালয়: মহাখালী ডিওএইচএস, রোড নং-৩১, বাড়ী নং- ৪৫৫, প্রকাশক কর্তৃক বিসমিল্লাহ প্রিন্টিং প্রেস থেকে মুদ্রিত
২১৯ ফকিরাপুল (১ম লেন নীচ তলা), মতিঝিল থেকে প্রকাশিত।  বাণিজ্যিক কার্যালয়: ৩৭/২ জামান টাওয়ার (১৫ তলা), পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০।
ফোন: ০২-৪৭১২০৮৬১, ০২-৪৭১২০৮৬২, ই-মেইল : [email protected], [email protected]